যে খাবারগুলো শীতকালে আমাদের চোখ ভালো রাখে

ছোটবেলা থেকেই আমরা শুনে এসেছি যে চোখ আমাদের শরীরের একটি অনেক দামী সম্পদ।আসলেও চোখের মত দামী কিছু নেই।কারন আপনি শুধু এক মিনিট এর জন্য চোখ বন্ধ করে ভাবুন আপনি অন্ধ হয়ে গেছেন।তাহলেই বুঝে যাবেন চোখ আপনার কত বড় সম্পদ।আজকের এই আর্টিকেল এর মাধ্যমে আমরা জানবো কিভাবে এই শীতকালে আমাদের চোখের যত্ন নিতে হবে।

বিসেসজ্ঞরা বলেন যে পুষ্টিকর খাবার সমূহ আমাদের শরীর কে সুস্থ রাখে সেই সব খাবার সমূহ আমাদের চোখও সুস্থ রাখতে সাহায্য করে।আর বর্তমান সময়ে বেশিরভাগ মানুষ অতিরিক্ত প্রযুক্তি আসক্তর ফলে চোখের সমস্যায় ভুগছেন বলে দাবি করছে গবেষক দল।সমস্যা গুলোর মধ্য চোখ শুকস হয়ে যাওয়া এবং ছানি পড়া অন্যতম।এছারা বিভন্ন রকম মানুষিক সমস্যার কারনেও চোখের সমস্যা হচ্ছে বলে বলছেন বিসেসজ্ঞরা।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন অনন্যা সময়ের তুলনায় শীতকালে বেশী চোখের সমস্যা দেখা যায়।কারন শীতকালে আবহাওয়া আদ্রতার কারনে আমাদের চোখ পর্যাপ্ত পরিমান পানি উৎপাদন করতে পারে না।ফলে আমাদের চোখে শুষ্কতা দেখা দেয়।আর এই শুষ্কতার কারনে চোখ জ্বালা করে এবং আরও অনেক এওকম সমস্যা দেখা দিতে পারে।সুতরাং অন্যান্য সময়ের থেকে শীতকালে আমাদের চোখের প্রতি বেশি যত্নবান হওয়া দরকার।শীতকালে এমন কিছু খাবার নিয়মিত গ্রহন করা উচিত যে খাবার গুলো আমাদের চোখের সুরক্ষায় ভূমিকা রাখে।চলুন জেনেন নেই সেই খাবার গুলো সম্পর্কে-

আমরা জানি আমলকী ভিটামিন সি দিয়ে ভরপুর।আমলকী আমাদের শরীরের সংযোগকারী টিস্যুগুলো ভালো রাখে আর এই কারনেই আমলকী আমাদের চোখের জন্যও উপকারী ফল হিসাবে বিবেচনা করা হয়।ভিটামিন সি এর আরও একটি উৎস হল কমলা তাই চোখ ভালো রাখার জন্য নিয়মিত আমাদের কমলাও খাওয়া উচিত।কমলা আমাদের চোখের উপরে যে চাপ পরে তা কমাতে সাহায্য করে।

এছারাও মিষ্টিআলু আমাদের চোখের জন্য অনেক উপকারী একটি খাদ্য।মিষ্টি আলুতে ভিটামিন এ ও বিটা ক্যারোটিন থাকে এবং ক্যারোটিন আমাদের চোখের দৃষ্টি শক্তি বাড়ায়।এছারাও পেয়ারা বয়স্ক মানুষদের চোখ ভালো রাখতে সাহায্য করে।

চোখের দৃষ্টি শক্তি বাড়ানোর জন্য আরও একটি উপকারী খাবার হল আমাদের অতি পরিচিতি পালং শাক।পালং শাকে প্রচুর পরিমানে ফলিক অ্যাসিড থাকে আর এই ফলিক অ্যাসিড নার্ভের সমস্যা প্রতিরোধ করে।আর এই কারনেই বিশেষজ্ঞরা চোখের সমস্যা দূর করতে পালং শাক খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন।

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *