চার লেনের মহাসড়কে চলতে দিতে হবে ট্যাক্স

বাংলাদেশের যে মহাসড়ক গুলো চার লেনে উন্নত করা হয়েছে সেই মহাসড়ক গুলোতে টোল আদায় করার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে সরকার।কত হারে টোল আদায় করা হবে তা নিয়ে কাজ করছে সড়ক ও জনপদ বিভাগ।ইতিমধ্য ঢাকা-মাওয়া এক্সপ্রেসওয়ের টোল হারের খসড়া তৈরি করা হয়েছে বলে জানাগেছে।

সড়ক পরিবহন এবং সেতু মন্ত্রালয়ের সিদ্ধান্ত অনুসারেই এই টোল আদায়ের সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে।তবে চার বা ছয় লেনের রাস্তার পাশে যে ধীর গতির লেন থাকে সেই লেনে চলতে কোন টোল দিতে হবে না।দেশের সব কটি সড়ক চার বা ছয় লেনে উন্নতি হবার পরেই এই টোল কার্যকর হবে।সড়ক উন্নতিকরন কাজের ব্যায়ভার মিটানোর জন্যই এই টোল নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

সরকারী এবং বেসরকারি অর্থায়নে নির্মিত প্রবেশ নিয়ন্ত্রিত ছয় লেনের ভোগড়া-ধীরাশ্রম-পূর্বাচল-ভুলতা-মদনপুর (ঢাকা বাইপাস) এবং রামপুরা-আমুলিয়া-ডেমরা মহাসড়কে চলাচল করতে এখন থেকে টোল দিতে হবে।ইতিমধ্য ঢাকা বাইপাশের টোল অনুমোদন দিয়েছে সরকারের অর্থ মন্ত্রালয়।

সংশ্লিষ্ট রা বলেন,এটা আমাদের দেশে নতুন মনে হলেও অন্যান্য দেশেও সড়কে টোল আদায় করা হয়।দেশের বিভিন্ন সেতু ছারাও চট্টগ্রাম বন্দর মহাসড়ক, চলনবিল মহাসড়ক এবং ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে বর্তমানে টোল আদায় করা হচ্ছে।চার লেরন মহাসড়ক এবং ছয় লেনের এক্সপ্রেসওয়েতে টোল আদায় করার জন্য গত বছরের আগস্টে একনেক সভায় নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

দেশের অর্থনীতিবিদরা বলছেন,টোল আদায় করার ভালো এবং খারাপ উভয় দিক রয়েছে।তবে আমরা যদি সড়ক গুলোর রক্ষানবেক্ষন এর কথা চিন্তা করি তাহলে টোল নেওয়া ছাড়া কোন উপায় নাই।এদিকে পরিবহন মালিকরা সরাসরি মহাসড়কে টোল আদায় এর বিরোধিতা না করলেও তাঁরা কেউ টোল আদায় এর পক্ষে কোন কথা বলছেন না।

ঢাকা-মাওয়া-ভাঙ্গা এক্সপ্রেসওয়ের দুই পাশের ধীর গতির লেন সহ নির্মাণ ব্যায় এগার হাজার কোটি টাকা যে পদ্মা সেতু হয়ে বাংলাদেশের দক্ষিন অঞ্চলকে দেশের রাজধানী ঢাকার সাথে যুক্ত করবে।এই মহাসড়ক ৫৫ কিলোমিটার হলেও শুধু মাত্র ঢাকা বাইপাসের জন্য টোল হাড় নির্ধারণ করা হবে বলে জানানো হয়েছে।নির্দিষ্ট টোল হাড় নির্ধারণ করার জন্য আজকে রবিবার একটি সভা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

টোল নীতিমালা ২০১৪ অনুসারে দেশের প্রথম এই এক্সপ্রেসওয়েতে টোল নির্ধারণ কমিটি ভিত্তিহার পদ্ধতিতে টোল আদায়ের জন্য সুপারিশ করেছিল।কিন্তু এই পদ্ধতিতে কখনও কম দূরত্বে বেশী টোল আবার কখনও বেশী দূরত্বে কম টোল দিতে হবে বিধায় প্রস্তাবটি বাতিল করা হয়।

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *