ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা ও কৃষকদের আরও ১৮.০৭ কোটি ইউএস ডলার ঋণ দেবে ইফাদ

আন্তর্জাতিক কৃষি উন্নয়ন তহবিল (ইফাদ) করোনা ভাইরাসে কারনে ক্ষতিগ্রস্ত বাংলাদেশের ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা এবং কৃষকদের আরও ১৮.০৭ কোটি ইউএস ডলার ঋণ কথা জানিয়েছে।এই ঋণ এর কারনে প্রমোটিং এগ্রিকালচারাল কমার্সিয়ালাইজেশন অ্যান্ড এন্টারপ্রাইজেজ প্রজেক্ট আরও বেগ পাবে বলেই মনে করে ইফাদ।পল্লী কর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশনের (পিকেএসএফ) মাধ্যমে ইফাদ এর প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হচ্ছে বলে জানা গেছে।এই অতিরিক্ত অর্থ ২০২১ সালের জানুয়ারি থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা ও কৃষকদের কল্যাণে ব্যাবহার করা হবে।

ইফাদ এর দক্ষিন এশিয়ার উপ আঞ্চলিক প্রধান রাশা ওমার আমাদের প্রতিনিধিকে বলেন,করনাভাইরাসের প্রভাব দীর্ঘমেয়াদি।আর এই দীর্ঘমেয়াদি প্রভাবকে মোকাবিলা করার জন্য আমাদের অর্থনীতিকে শক্ত ভিত্তির উপর স্থাপন করতে হবে।ইফাদ এই অর্থ সেই সকল ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা ও কৃষকদের মাঝে বিতরন করবে যারা করনাভাইরাসের কারনে ব্যাবসিয়িক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন।এই অর্থ তাঁদের জীবিকাকে পুনরায় সচল করবে এবং কিভাবে ঝুঁকি কমিয়ে আনা যায় সেই ব্যাপারে ইফাদ সাহায্য করবে।

প্রমোটিং এগ্রিকালচারাল কমার্সিয়ালাইজেশন অ্যান্ড এন্টারপ্রাইজেজ এই প্রকল্পে অর্থায়ন করছে,ইফাদ, বাংলাদেশ সরকার এবং পিকেএসএফ।এই প্রকল্প ২০১৫ সালে আমাদের দেশে শুরু করা হয় এবং এই প্রকল্পের প্রধান লক্ষ্য ছিল ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা সাহায্য করা এবং দরিদ্র মানুষের কর্মসংস্থান করা।

প্রমোটিং এগ্রিকালচারাল কমার্সিয়ালাইজেশন অ্যান্ড এন্টারপ্রাইজেজ প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা বলছেন,এই প্রকল্পের মাধ্যমে এই পর্যন্ত ৩ লাখ ২১ হাজার ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা এবং ভ্যালু চেইনের সাথে যুক্ত আছে এমন মানুষ উপকৃত হয়েছে।প্রমোটিং এগ্রিকালচারাল কমার্সিয়ালাইজেশন অ্যান্ড এন্টারপ্রাইজেজ প্রকল্পের মাধ্যমে,এই পর্যন্ত ৭৪ টি ভ্যালু চেইন প্রকল্প দেওয়া হয়েছে এবং উপ প্রকল্পের মাধ্যমে ২৫টি প্রযুক্তি হস্তান্তর প্রকল্প দেওয়া হয়েছে।

ইফাদ নতুন যে অতিরিক্ত অর্থ ঋণ দেয়াওার ঘোষণা দিয়েছে এই অর্থ প্লে এই প্রকল্পের সর্বমোট অর্থের পরিমান দাঁড়াবে,১২৯.৮১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।এবং এই ১২৯.৮১ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের মধ্য ইফাদ দিচ্ছে ৫৮.০৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।ইফাদের এই নতুন অর্থ হাতে পেলে প্রমোটিং এগ্রিকালচারাল কমার্সিয়ালাইজেশন অ্যান্ড এন্টারপ্রাইজেজ প্রকল্পের আওাতায় রাজশাহী, রংপুর, সিলেট, ঢাকা, খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগসমুহের ৪০ টি জেলায় প্রকল্প বাস্তবায়িত হবে।

ইফাদ কি?

ইফাদের পূর্ণ রূপ হলঃ ইন্টারন্যাশনাল ফান্ড ফর এগ্রিকালচারাল ডেভেলপমেন্ট,ইফাদ মূলত ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা,কৃষক এবং দরিদ্র মানুষের কর্মসংস্থান নিয়ে কাজ করে থাকে।

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *